ঢাকা ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Up to BDT 150 Cashback on New Connection

হাতীবান্ধা প্রান্নাথ পাটিকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

হাতীবান্ধায় এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

newsbijoy.com

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার প্রান্নাথ পাটিকাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্জুয়ারা বেগম। অত্র স্কুলে যোগদানের ১২ বছর অতিবাহিত হলেও অত্র স্কুলে রয়েছেন বহাল তবিয়তে।ফলে তার স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যহার ও দূনীর্তি দিন দিন বেড়েই চলেছে। প্রতিবছরের স্লিপের ও ক্ষুদ্র মেরামতের অর্থ দায়সারা কাজ করে লুটপাট করছে। দূশ্যমান কোন কাজ চোখে পড়েনি। স্কুলটিকে নিজের শশুড় বাড়ি বানিয়েছেন অভিযোগ স্থানীয়দের। স্কুলে আসা- যাওয়া থেকে শুরু করে সবর্ত্র তার দৌরাত্ম্য বেড়েছে। স্কুল চলে তার ইচ্ছা মাফিক। আসে ১১ টায় আবার চলে যায় দুপুর ২ টার আগে।রোববার সরেজমিনে গিয়ে এমনেই দূশ্য নজরে আসে। রোববার স্কুলে গিয়ে দেখা যায় শিক্ষা বিভাগের অনুমতি না নিয়ে ২টার আগে স্কুল ছেড়ে চলে যায়। ম্যানেজিং কমিটির প্রস্তাবিত কমিটিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদকে বাদ দিয়ে দূরবর্তী স্থানের প্রাক্তন শিক্ষক নূরুজ্জামানকে দাতা সদস্য করা হয়েছে। ১ নং বিদু্ৎসাহী করা হয়েছে অত্র বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মানছুরার স্বামী আহমাদুল আলম লিপটনকে।তার মেয়ে মাসতুরা জান্নাত হাতীবান্ধা ম্যাগপাই প্রি ক্যাডেট এন্ড কিন্টার গার্টেনের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। অপর বিদুৎসাহী সদস্য রাজু ইসলামের সন্তান পড়ে অন্য স্কুলে। গত কয়েক বছরে স্কুলের সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলও সন্তোজনক নয়। দীর্ঘদিনে ওই স্কুলে চাকুরী করার কারনে ওই প্রধান শিক্ষকের নানাবিধ কর্মকাণ্ডে স্থানীয় দাতা সদস্যসহ অভিভাবকরা অতিষ্ঠ। স্থানীয় অভিভাবক ও এলাকাবাসীর পক্ষে ওই প্রধান শিক্ষকের নানাবিধ কর্মকান্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত ও অন্যত্র বদলী করে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাররে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবী স্থানীয় অভিভাবকদের।
এ বিষয়ে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্জুয়ারা বেগমের মোবাইল নম্বর-০১৭১৯২০৮৯৬৯ এ নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ২ দিন স্কুলে গিয়ে নানা কারনে স্কুলে পাওয়া যায়নি। হাতীবান্ধা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা বেলাল হোসেন এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন প্রস্তাবিত কমিটি অনুমোদন করা হবেনা। স্থানীয় অভিভাবকদের সম্মতি নিয়ে প্রধান শিক্ষককে গ্রহণযোগ্য কমিটির প্রস্তাব পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

রানির মৃত্যুসনদে যা লেখা হয়েছে

হাতীবান্ধা প্রান্নাথ পাটিকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

হাতীবান্ধায় এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত সময়: ০৪:৫৩:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার প্রান্নাথ পাটিকাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্জুয়ারা বেগম। অত্র স্কুলে যোগদানের ১২ বছর অতিবাহিত হলেও অত্র স্কুলে রয়েছেন বহাল তবিয়তে।ফলে তার স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যহার ও দূনীর্তি দিন দিন বেড়েই চলেছে। প্রতিবছরের স্লিপের ও ক্ষুদ্র মেরামতের অর্থ দায়সারা কাজ করে লুটপাট করছে। দূশ্যমান কোন কাজ চোখে পড়েনি। স্কুলটিকে নিজের শশুড় বাড়ি বানিয়েছেন অভিযোগ স্থানীয়দের। স্কুলে আসা- যাওয়া থেকে শুরু করে সবর্ত্র তার দৌরাত্ম্য বেড়েছে। স্কুল চলে তার ইচ্ছা মাফিক। আসে ১১ টায় আবার চলে যায় দুপুর ২ টার আগে।রোববার সরেজমিনে গিয়ে এমনেই দূশ্য নজরে আসে। রোববার স্কুলে গিয়ে দেখা যায় শিক্ষা বিভাগের অনুমতি না নিয়ে ২টার আগে স্কুল ছেড়ে চলে যায়। ম্যানেজিং কমিটির প্রস্তাবিত কমিটিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদকে বাদ দিয়ে দূরবর্তী স্থানের প্রাক্তন শিক্ষক নূরুজ্জামানকে দাতা সদস্য করা হয়েছে। ১ নং বিদু্ৎসাহী করা হয়েছে অত্র বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মানছুরার স্বামী আহমাদুল আলম লিপটনকে।তার মেয়ে মাসতুরা জান্নাত হাতীবান্ধা ম্যাগপাই প্রি ক্যাডেট এন্ড কিন্টার গার্টেনের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। অপর বিদুৎসাহী সদস্য রাজু ইসলামের সন্তান পড়ে অন্য স্কুলে। গত কয়েক বছরে স্কুলের সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলও সন্তোজনক নয়। দীর্ঘদিনে ওই স্কুলে চাকুরী করার কারনে ওই প্রধান শিক্ষকের নানাবিধ কর্মকাণ্ডে স্থানীয় দাতা সদস্যসহ অভিভাবকরা অতিষ্ঠ। স্থানীয় অভিভাবক ও এলাকাবাসীর পক্ষে ওই প্রধান শিক্ষকের নানাবিধ কর্মকান্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত ও অন্যত্র বদলী করে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাররে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবী স্থানীয় অভিভাবকদের।
এ বিষয়ে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্জুয়ারা বেগমের মোবাইল নম্বর-০১৭১৯২০৮৯৬৯ এ নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ২ দিন স্কুলে গিয়ে নানা কারনে স্কুলে পাওয়া যায়নি। হাতীবান্ধা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা বেলাল হোসেন এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন প্রস্তাবিত কমিটি অনুমোদন করা হবেনা। স্থানীয় অভিভাবকদের সম্মতি নিয়ে প্রধান শিক্ষককে গ্রহণযোগ্য কমিটির প্রস্তাব পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন