ঢাকা ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Up to BDT 150 Cashback on New Connection

ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমাদানিতে লোকসান হওয়ায় আমদানি বন্ধ

newsbijoy.com

একদিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে কেজিতে মানভেদে কাঁচা মরিচের দাম ৮ থেকে ১০ কমেছে কমেছে। একদিন আগে প্রতি কেজি দেশি কাঁচা মরিচ ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছিল। বর্তমানে দাম কমে ৩০ থেকে ৩১ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এদিকে বর্তমানে দেশের বাজারে দেশী কাঁচা মরিচের দাম কম হওয়ায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হচ্ছে। ফলে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ রেখেছে এই বন্দরের ব্যবসায়ীরা

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে আসা ক্রেতারা জানান,‌ কয়েক দিন আগে কাঁচা মরিচের দাম ডাবল সে ুরি পার করে ২৫০ টাকায় উঠেছিল। বর্তমানে দাম কমে ৩০ টাকায় নেমেছে।

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রেতা বিপ্লব শেখ বলেন, কয়েক দিন ধরে আবহাওয়া ভালো থাকায় দেশের বিভিন্ন অ লে কাঁচা মরিচের উৎপাদন ভালো হয়েছে। এতে মোকামগুলোতে কাঁচা মরিচের সরবরাহ আগের তুলনায় বেড়েছে কয়েকগুন। আগে শুধু বগুড়া থেকে কাঁচা মরিচ আসছিল। এখন নওগাঁসহ আশপাশের এলাকা থেকেও আসছে কাঁচা মরিচ। এতে বাজারে কাঁচা মরিচের সররবাহ অনেকটাই বেড়েছে গেছে। মোকামে আমরা যেমন কম দামে কাঁচা মরিচ কিনতে পারছি, তেমনি বাজারে কম দামে বিক্রিও করতে পারছি। দেশি কাঁচা মরিচের সরবরাহ বাড়ায় ভারত থেকে আমদানি বন্ধ থাকলেও এর প্রভাব পড়েনি এই বন্দরের বাজারে।

হিলি স্থলবন্দরের কাঁচামরিচ আমদানিকারকরা বলেন, বর্তমানে দেশের বাজারে দেশি কাঁচা মরিচের সরবরাহ বাড়ায় দাম ৩০-৪০ টাকায় নেমে এসেছে। সেই হিসাবে দেশের চেয়ে ভারতের বাজারেই কাঁচা মরিচের দাম বেশি। এমন অবস্থায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হবে। তাই লোকসান থেকে বাঁচতে গত বৃহস্পতিবার থেকে বন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ রাখা হয়েছে।
হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুন বলেন,গত ১০ নভেম্বর ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। দেশের বাজারে কাঁচামরিচের দামের ঊর্ধ্বগতির কারণে ফের ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানির অনুমতি দেন সরকার। দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর গত শনিবার (৬ আগষ্ট) ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানি শুরু হয় এই বন্দর দিয়ে। বর্তমানে দেশের বাজারে দেশী কাঁচা মরিচের দাম কম হওয়ায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হচ্ছে। এ কারনেই কাঁচামরিচ আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে এই বন্দরের ব্যবসায়ীরা। ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ হলেও দেশের বাজারে এর কোন প্রভাব পড়বে না।

হিলি কাস্টম্স সূত্রে জানা যায়,গত শনিবার (৬ আগস্ট) থেকে (২৫ আগস্ট) বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি হয়েছে ৬ শ ৬১ মেট্রিকটন

নিউজবিজয়/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

রানির মৃত্যুসনদে যা লেখা হয়েছে

ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমাদানিতে লোকসান হওয়ায় আমদানি বন্ধ

প্রকাশিত সময়: ০৮:২৯:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ অগাস্ট ২০২২

একদিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে কেজিতে মানভেদে কাঁচা মরিচের দাম ৮ থেকে ১০ কমেছে কমেছে। একদিন আগে প্রতি কেজি দেশি কাঁচা মরিচ ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছিল। বর্তমানে দাম কমে ৩০ থেকে ৩১ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এদিকে বর্তমানে দেশের বাজারে দেশী কাঁচা মরিচের দাম কম হওয়ায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হচ্ছে। ফলে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ রেখেছে এই বন্দরের ব্যবসায়ীরা

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে আসা ক্রেতারা জানান,‌ কয়েক দিন আগে কাঁচা মরিচের দাম ডাবল সে ুরি পার করে ২৫০ টাকায় উঠেছিল। বর্তমানে দাম কমে ৩০ টাকায় নেমেছে।

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রেতা বিপ্লব শেখ বলেন, কয়েক দিন ধরে আবহাওয়া ভালো থাকায় দেশের বিভিন্ন অ লে কাঁচা মরিচের উৎপাদন ভালো হয়েছে। এতে মোকামগুলোতে কাঁচা মরিচের সরবরাহ আগের তুলনায় বেড়েছে কয়েকগুন। আগে শুধু বগুড়া থেকে কাঁচা মরিচ আসছিল। এখন নওগাঁসহ আশপাশের এলাকা থেকেও আসছে কাঁচা মরিচ। এতে বাজারে কাঁচা মরিচের সররবাহ অনেকটাই বেড়েছে গেছে। মোকামে আমরা যেমন কম দামে কাঁচা মরিচ কিনতে পারছি, তেমনি বাজারে কম দামে বিক্রিও করতে পারছি। দেশি কাঁচা মরিচের সরবরাহ বাড়ায় ভারত থেকে আমদানি বন্ধ থাকলেও এর প্রভাব পড়েনি এই বন্দরের বাজারে।

হিলি স্থলবন্দরের কাঁচামরিচ আমদানিকারকরা বলেন, বর্তমানে দেশের বাজারে দেশি কাঁচা মরিচের সরবরাহ বাড়ায় দাম ৩০-৪০ টাকায় নেমে এসেছে। সেই হিসাবে দেশের চেয়ে ভারতের বাজারেই কাঁচা মরিচের দাম বেশি। এমন অবস্থায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হবে। তাই লোকসান থেকে বাঁচতে গত বৃহস্পতিবার থেকে বন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ রাখা হয়েছে।
হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুন বলেন,গত ১০ নভেম্বর ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। দেশের বাজারে কাঁচামরিচের দামের ঊর্ধ্বগতির কারণে ফের ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানির অনুমতি দেন সরকার। দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর গত শনিবার (৬ আগষ্ট) ভারত থেকে কাঁচামরিচ আমদানি শুরু হয় এই বন্দর দিয়ে। বর্তমানে দেশের বাজারে দেশী কাঁচা মরিচের দাম কম হওয়ায় ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি করে লোকসান গুনতে হচ্ছে। এ কারনেই কাঁচামরিচ আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে এই বন্দরের ব্যবসায়ীরা। ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ হলেও দেশের বাজারে এর কোন প্রভাব পড়বে না।

হিলি কাস্টম্স সূত্রে জানা যায়,গত শনিবার (৬ আগস্ট) থেকে (২৫ আগস্ট) বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি হয়েছে ৬ শ ৬১ মেট্রিকটন

নিউজবিজয়/এফএইচএন