ঢাকা ০৩:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Up to BDT 150 Cashback on New Connection

চাকরি না পেয়ে সনদপত্র ছিঁড়ে ফেললেন বাদশা

  • অনলাইন ডেস্ক :-
  • প্রকাশিত সময়: ০২:২৮:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • 102

newsbijoy.com

চাকরি না পেয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে বাদশা নামে এক যুবক তার একাডেমিক সব সনদপত্র ছিঁড়ে ফেলেছেন। ফেসবুক লাইভে এসে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সনদগুলো ছিঁড়ে ফেলেন তিনি। বাদশা মিয়া নামের ওই যুবক ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের সুন্দর খাতা গ্রামের মহুবর রহমানের ছেলে। ছয় ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড় তিনি। জানা যায়, বাদশা পাঙ্গা চৌপতি আব্দুল মজিদ দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২০০৭ সালে দাখিল, ২০০৯ সালে সোনাখুলি মুন্সিপাড়া থেকে আলিম এবং ২০১৪ সালে নীলফামারী সরকারি কলেজ থেকে পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স সম্পন্ন করেন। বাদশা মিয়া বলেন, ‘আমার স্বপ্ন ছিল পড়ালেখা শেষ করে চাকরি করব। কিন্তু সার্টিফিকেটের কারণে আমাকে বিভ্রান্ত হতে হয়েছে। এ সার্টিফিকেটের কারণে সব কাজ করতে পারি না আমি। যে কারণে আমার শিক্ষার এই অর্জন সনদগুলো ছিঁড়ে ফেলতে বাধ্য হচ্ছি।’এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, হতাশাগ্রস্ত হয়ে বাদশা এ কাজটি করেছেন। তিনি আরও বলেন, আমরা তো একটি সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করতে পারব না। আমরা যুব উন্নয়নের বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আওতায় তাকে নিয়ে আসব। যাতে সে উদ্যোক্তা হতে পারে। যাতে সে চাকরির পেছনে না ছুটে নিজেই একজন সফল উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারে। আগামী যেকোনো বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের আওতায় আমরা তাকে অবশ্যই আনব।

নিউজ বিজয়/মোঃ নজরুল ইসলাম

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

চাকরি না পেয়ে সনদপত্র ছিঁড়ে ফেললেন বাদশা

প্রকাশিত সময়: ০২:২৮:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

চাকরি না পেয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে বাদশা নামে এক যুবক তার একাডেমিক সব সনদপত্র ছিঁড়ে ফেলেছেন। ফেসবুক লাইভে এসে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সনদগুলো ছিঁড়ে ফেলেন তিনি। বাদশা মিয়া নামের ওই যুবক ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের সুন্দর খাতা গ্রামের মহুবর রহমানের ছেলে। ছয় ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড় তিনি। জানা যায়, বাদশা পাঙ্গা চৌপতি আব্দুল মজিদ দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২০০৭ সালে দাখিল, ২০০৯ সালে সোনাখুলি মুন্সিপাড়া থেকে আলিম এবং ২০১৪ সালে নীলফামারী সরকারি কলেজ থেকে পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স সম্পন্ন করেন। বাদশা মিয়া বলেন, ‘আমার স্বপ্ন ছিল পড়ালেখা শেষ করে চাকরি করব। কিন্তু সার্টিফিকেটের কারণে আমাকে বিভ্রান্ত হতে হয়েছে। এ সার্টিফিকেটের কারণে সব কাজ করতে পারি না আমি। যে কারণে আমার শিক্ষার এই অর্জন সনদগুলো ছিঁড়ে ফেলতে বাধ্য হচ্ছি।’এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, হতাশাগ্রস্ত হয়ে বাদশা এ কাজটি করেছেন। তিনি আরও বলেন, আমরা তো একটি সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করতে পারব না। আমরা যুব উন্নয়নের বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আওতায় তাকে নিয়ে আসব। যাতে সে উদ্যোক্তা হতে পারে। যাতে সে চাকরির পেছনে না ছুটে নিজেই একজন সফল উদ্যোক্তা হয়ে উঠতে পারে। আগামী যেকোনো বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের আওতায় আমরা তাকে অবশ্যই আনব।

নিউজ বিজয়/মোঃ নজরুল ইসলাম