ঢাকা ০৩:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Up to BDT 150 Cashback on New Connection

এসএসসির প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় ইউএনওকে শোকজ, বোর্ডের তদন্ত শেষ

  • অনলাইন ডেস্ক :-
  • প্রকাশিত সময়: ০৭:০৮:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • 93

newsbijoy.com

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে এসএসসির প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা দুদিন সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত শেষে ফিরে গেছেন। এছাড়া এ ঘটনায় ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, বিধি মোতাবেক ইউএনও দীপক কুমার দেব পরীক্ষার ব্যাপারে সব ধরনের চিঠি ইস্যু করেছেন। তারপরেও কোনো গাফিলতি আছে কি-না বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইউএনওকে শোকজ করা হয়েছে। তাকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। শোকজের জবাব পেলে পরবর্তীতে করণীয় ঠিক করা হবে।

এ ব্যাপারে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার দেব শর্মাকে একাধিবার মোবাইলে কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এদিকে প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার শামছুল আলম। তিনি জানান, প্রশ্ন ফাঁসের এ ঘটনায় শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালকের পক্ষে আমি গতকাল বৃহস্পতিবার নেহাল উদ্দিন বালিকা বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করি। সহকারী প্রধান শিক্ষক খলিলুর রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষকদের জবানবন্দি রেকর্ড করেছি। প্রশ্নফাঁস চক্রের সঙ্গে জড়িত কেউ রেহাই পাবেন না। এ প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত শিক্ষা বিভাগের কেউ জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় গত মঙ্গলবার ভূরুঙ্গামারী নেহাল উদ্দিন পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব লুৎফর রহমানসহ তিন শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর এ মামলায় আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ।তারা হলেন- ভূরুঙ্গামারী নেহাল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃষি বিজ্ঞানের শিক্ষক হামিদুল ইসলাম, বাংলা বিষয়ের শিক্ষক সোহেল আল মামুন ও পিয়ন সুজন।

প্রশ্নফাঁসের ঘটনার পরে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড ওই ৪টি পরীক্ষা স্থগীত ঘোষণা করে। এরপর বৃহস্পতিবার জীববিজ্ঞান ও উচ্চতর গণিতের পরীক্ষাও স্থগিত করে নোটিশ দিয়েছে বোর্ড।

নিউজবিজয়/এফএইচএন

সকল সংবাদ পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন…

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

NewsBijoy

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

এসএসসির প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় ইউএনওকে শোকজ, বোর্ডের তদন্ত শেষ

প্রকাশিত সময়: ০৭:০৮:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে এসএসসির প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা দুদিন সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত শেষে ফিরে গেছেন। এছাড়া এ ঘটনায় ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, বিধি মোতাবেক ইউএনও দীপক কুমার দেব পরীক্ষার ব্যাপারে সব ধরনের চিঠি ইস্যু করেছেন। তারপরেও কোনো গাফিলতি আছে কি-না বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইউএনওকে শোকজ করা হয়েছে। তাকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। শোকজের জবাব পেলে পরবর্তীতে করণীয় ঠিক করা হবে।

এ ব্যাপারে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার দেব শর্মাকে একাধিবার মোবাইলে কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এদিকে প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার শামছুল আলম। তিনি জানান, প্রশ্ন ফাঁসের এ ঘটনায় শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালকের পক্ষে আমি গতকাল বৃহস্পতিবার নেহাল উদ্দিন বালিকা বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করি। সহকারী প্রধান শিক্ষক খলিলুর রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষকদের জবানবন্দি রেকর্ড করেছি। প্রশ্নফাঁস চক্রের সঙ্গে জড়িত কেউ রেহাই পাবেন না। এ প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত শিক্ষা বিভাগের কেউ জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় গত মঙ্গলবার ভূরুঙ্গামারী নেহাল উদ্দিন পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব লুৎফর রহমানসহ তিন শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর এ মামলায় আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ।তারা হলেন- ভূরুঙ্গামারী নেহাল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃষি বিজ্ঞানের শিক্ষক হামিদুল ইসলাম, বাংলা বিষয়ের শিক্ষক সোহেল আল মামুন ও পিয়ন সুজন।

প্রশ্নফাঁসের ঘটনার পরে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড ওই ৪টি পরীক্ষা স্থগীত ঘোষণা করে। এরপর বৃহস্পতিবার জীববিজ্ঞান ও উচ্চতর গণিতের পরীক্ষাও স্থগিত করে নোটিশ দিয়েছে বোর্ড।

নিউজবিজয়/এফএইচএন